এখন সময় :
,

একি কান্ড ঘটালেন ফেনী সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফোরকান চৌধুরী! বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করতে আপন ছোট ভাই ও তার স্ত্রী হত্যার চেষ্টা

জাবেদ হোসাইন মামুন->>>
ফেনী সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান ফোরকান চৌধুরী ও তার ভাড়াটে সন্ত্রাসিরা নিজ বাড়ি থেকে উচ্ছেদ করার উদ্দেশ্যে ছোট ভাই ও তার স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফেনী সদর হাসপাতালের বেডে কাতরাচ্ছেন তার ছোট ভাই বোরহান উদ্দিন চৌধুরী ও তার স্ত্রী রাশেদা আক্তার রুমা। শুধু তাই নয় বস ঘর ও পোল্ট্রি খামারেও ব্যাপক লুটপাট ও ভাঙচুর চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা।
২৭ ফেব্রুয়ারি বেলা ১১টায় ফেনী সদর উপজেলার ফরহাদ নগর ইউপির নৈরাজপুর গ্রামের নিজ বাড়িতে এঘটনা ঘটে।
আহতের পরিবার, পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, বসত বাড়ি থেকে উচ্ছেদের উদ্দেশ্যে ফোরকান চৌধুরীর নেতৃত্বে, তার অপর ভাই ফজলুল করিম চৌধুরী, ইলিয়াছের ছেলে শাহাদাত হোসেন, সিরাজুল ইসলামের ছেলে শরীফুল ইসলাম জাবেদ, মিজানুর রহমান মিন্টুর ছেলে কায়সার, তাজুল ইসলামের ছেলে মহি উদ্দিন মুখা, সাহাব উদ্দিনের ছেলে রিফাত, আবুল কাশেমের ছেলে মিশু, সিরাজুল ইসলামের ছেলে ইমন ও বশির আহম্মদের ছেলে হাবিব উল্যাহ সহ অজ্ঞাত ১০/১২জন সন্ত্রাসি বসত ঘরে ঢুকে অতর্কিত হামলা চালিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়। এসময় তার ভাই বোরহান উদ্দিন চৌধুরী ও তার স্ত্রী রাশেদা আক্তার রুমা মারাত্মক আহত হয়। এসময় সন্ত্রাসিরা বোরহানের স্ত্রীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালিয়েছে এবং বসত ঘরের মালামাল ও পোল্ট্রি ফার্মে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়।
স্থানীয়রা পুলিশের সহযোগিতায় আহতদেরকে ফেনী সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল থেকে দুইজনকে আটক করেছে।
ফোরকান চৌধুরীর এ নিষ্ঠুরতায় ফেনীর সচেতন মহল হতবাক হয়েছেন। একজন জনপ্রতিনিধি যদি পরিবারের সদস্যদের প্রতি এমন নিষ্ঠুর হতে পারে তাহলে সাধারন মানুষের উপর তার নিষ্ঠুরতার চিত্র কত ভয়ঙ্কর হতে পারে।
ফোরকান চৌধুরী বালু দস্যু হিসেবে এলাকায় পরিচিত হওয়ায় এবার ভাইস চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন পাননি বলে আ’লীগ ও সহযোগি সংগঠনের একাধিক নেতাকর্মীদের দাবি।
তার নিষ্ঠুরতার লাগাম টেনে ধরার দাবি জানিয়েছে এলাকাবাসী।
জাহাজের খালাসী থেকে বালু দস্যু হিসেবে আভির্ভুত হন ফোরকান চৌধুরী।
এলাকাবাসীর দাবি ফোরকান চৌধুরী জামায়াত থেকে পূণর্বাসন হতে তার আ’লীগে যোগদান বলে দলীয় ও পরিবারের একাধিক সদস্যদের দাবি।
এব্যাপারে আহত বোরহান উদ্দিন চৌধুরী বাদি হয়ে ১০ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত ১০/১২জনকে আসামি করে ফেনী মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
ফেনী মডেল থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি পারিবারিক ভাবে নাকি সমাধানের চেষ্টা করছে তারা। পারিবারিক ভাবে সমাধান না হলে পরবর্তীতে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

নোটিশ :   FeniVision24.com প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মদ তমিজ উদ্দিন, সম্পাদক: জহিরুল হক মিলু
ইমেইল : fenivision@gmail.com, মোবাইল: 01823644138, 01841710509
ঠিকানা: ৪৩১ সোনালী ভবন(২য় তলা) ট্রাংক রোড়, ফেনী