এখন সময় :
,

কোম্পানীগঞ্জে সততা স্টোর উদ্বোধন

আব্দুর রহিম>>
নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সিরাজপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের নৈতিক শিক্ষা ও সততা চর্চার জন্য বিদ্যালয়ের একটি কক্ষে দুদকের সহযোগিতায় ও উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির তত্ত্বাবধানে তৈরি করা হয়েছে সততা স্টোর।
এই স্টোরে নাই কোনো বিক্রেতা, নাই নজরদারির ব্যবস্থা। শিক্ষার্থীরা তাদের প্রয়োজনীয় সব কিছুই কিনবে এখান থেকে এবং নিজেরাই প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম রেখে দেবে  সেখানে। সোমবার সকাল ১১ টায় আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন মাধ্যমে স্টোরটি চালু করা হয়েছে।
এসময় উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জামিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান আজম পাশা চৌধুরী রুমেল, দুপ্রক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু ছায়েদ,সিরাজপুর উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক শহীদ উল্যাহ, কবি জসিম উদ্দিন স্কুল প্রধান শিক্ষক আবুল কাসেম ,দুপ্রক সহ-সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন মুক্তা,দু্প্রক সদস্য নাজমা শিপা, দুপ্রক সদস্য শাহজাহান,বিশিষ্ট সমাজ সেবক মজিবর রহমান মোহন।
দুপ্রক পরিবার সদস্য আশ্রাফুল ইসলাম লিংকন, নাজমুল আলম মাসুদ ,সুমনা সুমি, সরল মানুষ খ্যাত আবদুল মতিন,আলা উদ্দিন প্রমুখ।
বিদ্যালয়ের সভাপতি অধ্যাপক বেলায়েত হোসেন স্বপন তিনি বলেন, এটির মূল উদ্দেশ্য, শিক্ষার্থীরা যেন সৎ মানুষ হিসেবে তৈরি হতে পারে সে লক্ষ্যেই সততা স্টোর তৈরি করা।’
প্রধান শিক্ষক শহীদ উল্যাহ তার বক্তব্যে বলেন, ‘শিক্ষা হলো আচরণের কাঙ্ক্ষিত পরিবর্তন, দক্ষতা ও জ্ঞান অর্জন। এসব মেনে সুনাগরিক তৈরির লক্ষ্যেই সততা স্টোরের যাত্রা।
উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল বলেন, ‘সততা স্টোর, সততা তৈরির কারখানা।’আমাদের নিজেদের মধ্যে ন্যায় নীতির চর্চা করতে হবে।আমরা প্রথমে নিজেরা দুর্নীতি করবো না, পরে অন্যদের করতে দেবো না।
দুদকের সহযোগিতায় তৈরি করা হয়েছে এই সততা স্টোর।শিক্ষার্থীদের মধ্যে সততা ও ন্যায়-নীতির অনুশীলনের সুযোগ করে দিতেই এ ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।
এদিকে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি সাধারন সম্পাদক তাজ উদ্দিন শাহীন বলেন, এটিকে সততার ব্যবহারিক শ্রেণিকক্ষ বলা যেতে পারে। শিক্ষার্থীদের ভালো মানুষ হয়ে, সৎ নাগরিক হয়ে দেশ গড়ার তাগিদ দেন| নির্দিষ্ট কিছু নির্দেশনা মেনে ওই দোকান থেকে তাদের প্রয়োজনীয় যেকোনো পণ্য কিনতে পারবে শিক্ষার্থীরা। দোকানের চারপাশে তাকে সাজানো আছে কলম, পেনসিল, খাতা, জ্যামিতি বক্স, রাবার, বিস্কুট, চানাচুর, চকলেটসহ বিভিন্ন রকমের শিক্ষাসামগ্রী। একটি পণ্য অতিরিক্ত নিলে বা টাকা না দিলে দেখার কেউ নেই। তবু সততার পরীক্ষায় পাস করতে পারে কি না, তা দেখার পালা। প্রতিদিন স্কুল চলাকালীন ওই দোকান খোলা থাকবে। কেবল স্কুলের শিক্ষার্থীরা দোকান থেকে পণ্য ক্রয় করতে পারবে।
নোটিশ :   FeniVision24.com প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

প্রধান সম্পাদক: মোহাম্মদ তমিজ উদ্দিন, সম্পাদক: জহিরুল হক মিলু
ইমেইল : fenivision@gmail.com, মোবাইল: 01823644138, 01841710509
ঠিকানা: ৪৩১ সোনালী ভবন(২য় তলা) ট্রাংক রোড়, ফেনী